শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২, ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

হ্যাটট্রিকের মায়া ছেড়ে প্রশংসায় ভাসছেন মেসি

প্রকাশিত : 08:12 AM, 24 April 2021 Saturday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, গ্যারেথ বেলরা তখন রিয়াল মাদ্রিদে। আলাভেসের বিপক্ষে ২০১৮ সালে লা লিগার সেই ম্যাচে হ্যাটট্রিকের দ্বারপ্রান্তে ছিলেন রোনালদো। চাই আর এক গোল। হঠাৎ পেনাল্টি পায় রিয়াল। রোনালদো সবাইকে অবাক করে দিয়ে স্পটকিকটা নিতে বলেন করিম বেনজেমাকে। সে ম্যাচে রোনালদো শেষ পর্যন্ত হ্যাটট্রিক না পেলেও তার নিঃস্বার্থ মানসিকতার বন্দনায় মেতেছিল সবাই। গতপরশু বার্সেলোনা-গেতাফে ম্যাচে লিওনেল মেসিও করলেন একই জিনিস। আর্জেন্টাইন তারকার প্রশংসায় মুখর সবাই। তাতে অবশ্য ম্যাচের ফলে আসেনি কোনে তারতম্য। বরং আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের জোড়া গোলে ভর করেই ম্যাচটি ৫-২ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা।
৩৩ মিনিটের মধ্যে জোড়া গোল পেয়ে গিয়েছিলেন মেসি। অপেক্ষা ছিল হ্যাটট্রিক তুলে নেওয়ার। যোগ করা সময়ে ২ মিনিটের মাথায় সুযোগটা পেয়েও যান সময়ের সেরা তরাকা। গেতাফে বক্সের মধ্যে বার্সেলোনার ফরাসি তারকা আঁতোয়ান গ্রিজমানকে ফাউল করেন অতিথি দলটির সেন্টার ব্যাক সোফিয়ান চাকলা। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পটকিকটি মেসি নিতে পারতেন। হ্যাটট্রিকের মুখে দাঁড়িয়ে সেটিই হয়তো স্বাভাবিক হতো। কিন্তু তা না করে গ্রিজমানকে গোল করার সুযোগ করে দেন মেসি। ম্যাচের শেষ গোলটি করে গ্রিজমানও তার সতীর্থকে হতাশ করেননি।
এর আগে বার্সাকে ম্যাচে এগিয়ে দেন মেসি। ৮ মিনিটে সার্জিও বুসকেটসের নিখুঁত পাস থেকে গোল করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। কিন্তু এই ‘এগিয়ে যাওয়া’ ৪ মিনিটের বেশি ধরে রাখতে পারেনি বার্সা। ১২ মিনিটে আত্মঘাতী গোল করে বসেন বার্সা ডিফেন্ডার ক্লেঁম লংলে। গেতাফে এই ‘উপহার’ ফিরিয়ে দিতে মাত্র ১৬ মিনিট দেরি করেছে। ২৮ মিনিটে প্রতিপক্ষের কাছ থেকে আত্মঘাতী গোল উপহার পায় বার্সাও। সতীর্থ গোলরক্ষক ডেভিড সোরিয়াকে ব্যাক-পাস দিতে গিয়ে ‘নিখুঁত প্লেসিং শটে’ বল নিজেদের জালে পাঠানোর অনিচ্ছাকৃত ‘অপরাধ’ করে বসেন চাকলা।
প্রথমার্ধের ৩৩ মিনিটে আরও একটি গোল পান মেসি। প্রথমে গোলপোস্টে মেরে পরে দুরূহ কোণ থেকে লা লিগায় নিজের ২৫তম গোলটি তুলে নেন তিনি। টানা ১২ মৌসুম স্পেনের শীর্ষস্থানীয় লিগে এ নিয়ে ন্য‚নতম ২৫ গোল করলেন রেকর্ড সাতবারের পিচিচি ট্রফি জয়ী। ম্যাচে হেরেও পেনাল্টি পেয়েছে। ৬৯ মিনিটে বার্সা সেন্টার ব্যাক রোনাল্ড আরাউজোর ফাউল থেকে পেনাল্টি পায় গেতাফে, গোল করেন এনেস ইউনাল। নির্ধারিত সময়ের ৩ মিনিট আগে মেসির কর্নার থেকে হেডে গোল করে ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করেন আরাউজো।
গত অক্টোবরে ঘরের মাঠে বার্সেলোনাকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল গেতাফে। সেটাই ছিল মৌসুমে মেসিদের প্রথম হার। লিগে টানা ১৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর গত রাউন্ডে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে হেরে বসে বার্সেলোনা। অবশ্য সেই ধাক্কা ইতোমধ্যে দারুণভাবে সামলে নিয়েছে তারা; গত শনিবার আথলেতিক বিলবাওকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে ঘরে তুলেছে কোপা দেল রে শিরোপা। আরেকটি দারুণ পারফরম্যান্সে লিগেও জয়ের পথে ফিরল কোমানের দল, শিরোপা ভাগ্য রাখল নিজেদের হাতেই।
৩১ ম্যাচে ২১ জয় ও পাঁচ ড্রয়ে ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে ফিরল বার্সেলোনা। একটি করে ম্যাচ বেশি খেলা রিয়াল ও আতলেতিকো মাদ্রিদের পয়েন্ট যথাক্রমে ৭০ ও ৭৩। দিয়েগো সিমেওনের দলের চেয়ে বার্সেলোনা ৫ পয়েন্টে পিছিয়ে। তবে একটি ম্যাচ কম খেলায় এবং তাদের সঙ্গে ফিরতি লেগ বাকি থাকায় শিরোপা ভাগ্য বার্সেলোনার হাতে। বাকি ম্যাচগুলো জিতলেই শিরোপা যাবে বার্সেলোনায়। ৩২ ম্যাচে ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে নেমে গেছে সেভিয়া। ৩১ পয়েন্ট নিয়ে ১৫ নম্বরে গেতাফে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT