ঢাকা, শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

সম্ভাব্যতা যাচাই না করেই অনেক প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছিল ॥ মেয়র তাপস

প্রকাশিত : 09:17 PM, 11 November 2020 Wednesday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

বিগত দিনে সম্ভাব্যতা যাচাই না করেই অনেক প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। বুধবার নগরীর বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন তিনি।

প্রতি বুধবার নিয়মিত সাপ্তাহিক নগর পরিদর্শনে বের হন নতুন এই মেয়র। এরি ধারাবাহিকতায় সকালে হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল, মৎস্য ভবন, শাখারী বাজার, নয়াবাজার, মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের ঢাকা ডেমরা সড়কের টোল প্লাজা এবং ঢাকা মেডিক্যাল সংলগ্ন নির্মাণাধীন ফুট ওভারব্রিজগুলোর কার্যক্রম পরিদর্শন করেন তিনি। এরপর কথা বলেন গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে।

ঢাকার অনেক পুরনো বাস চলাচল করছে এবং নিবন্ধনের উদ্যোগ নেয়ার পরও এখনও নিবন্ধনহীন লাখ লাখ রিকশা নগরীতে চলাচল করছে। এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপের ব্যাপারে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে ডিএসসিসি মেয়র বলেন, ‘দীর্ঘ ৩৪ বছর পর রিকশা নিবন্ধনের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আবেদন পরবর্তী নিবন্ধনের প্রয়োজনীয় কিছু আনুষ্ঠানিকতা রয়েছে। আমরা আশা করছি, এই মাসের মধ্যেই একটি পর্যায়ে আমরা যেতে পারব। আর গতকাল আমরা বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির যে বৈঠক করেছি, সেখানে দুটি সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি। তার মধ্যে একটি হলো- পুরাতন বাস বাদ যাবে, নতুন বাস সংযোজিত হবে।

কেস প্রকল্পের আওতায় পরিবেশবান্ধব অনেকগুলো ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছিল উল্লেখ করে তাপস বলেন, যেখানে গাছ-গাছালি লাগানো হয়, যদিও নির্মাণের কিছুদিন পর সেখানে আর গাছ-গাছালি দেখা যায়নি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডিএসসিসি মেয়র আরো বলেন, এজন্য আমি মনে করছি যে, সরেজমিনে এগুলো পরিদর্শন করা দরকার, যথার্থতা যাচাই করা দরকার। কারণ, অনেকগুলো প্রকল্প নেয়া হয়েছিল, যেগুলোর সম্ভাব্যতা যাচাই করা হয়নি। সুতরাং সম্ভাব্যতা যাচাই না করে যত্রতত্র যে প্রকল্পগুলো নেয়া হয়, আমরা পরবর্তীতে দেখি সেগুলো সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হয় না এবং সেগুলো কার্যকরও হয় না।

মৎস্য ভবনের কোণায় ও হাইকোর্টের সামনে এবং পুরান ঢাকার জজ কোর্টের সামনে নির্মাণাধীন ফুট ওভারব্রিজ দুটির খুবই চাহিদা রয়েছে এবং এই দুটোর কাজ জরুরিভিত্তিতে নির্মাণ সম্পন্নের নির্দেশনা দিয়েছেন জানিয়ে ডিএসসিসি ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, ‘বাকি বেশ কটির কাজ এখনও শুরু হয়নি, দীর্ঘসূত্রিতা রয়েছে এবং অনেকগুলো প্রকল্পের দীর্ঘদিন ধরে কোনও কাজই হয়নি।

যেমন আমরা যেখানে দাঁড়িয়ে কথা বলছি- ঢাকা মেডিক্যালের সামনের এই ফুটওভার ব্রিজটি নির্মাণের কাজ এখনও শুরুই হয়নি বলা যায়। শুধু লিফট ফ্লোর করা হয়েছে। এরকম দুটো ফুট ওভারব্রিজে লিফট খাতে সংযোজন করা হয়েছে। সেগুলো সম্ভাব্যতা যাচাই করা উচিত ছিল। কারণ এগুলো কতটুকু যথার্থ হবে, মানুষ কতটুকু লিফট ব্যবহার করবে সেসব কার্যকারিতা যাচাই না করে প্রকল্প গ্রহণ করা সমীচীন হয়নি। এই ধরনের বিষয়গুলো আমরা খতিয়ে দেখছি, যাতে করে এসব কাজে দুর্নীতির কোনও সংশ্লিষ্টতা না থাকে এবং জনগণ যেন এটার সুফল পায়।

পরিদর্শনকালে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপসের সঙ্গে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী রেজাউর রহমান, সচিব আকরামুজ্জামান, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আরিফুল হকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে মেয়র তাপস বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করছি, এখনো এডিস মশার প্রকোপ রয়ে গেছে। যদিও সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত এডিস মশার উপদ্রব থাকে। কিন্তু নবেম্বর মাসেও এ মশার উপদ্রব রয়ে গেছে। এজন্য আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত আরো বেশি করে অভিযান পরিচালনা করেছি। আমরা ঢাকাবাসীকে অনুরোধ করব, তারা যেন জমে থাকা পানির বিষয়টির দিকে নজর দেন। তা না হলে আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করে জরিমানা করতে বাধ্য হবো।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT