ঢাকা, রবিবার ১৩ জুন ২০২১, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

রাস্তা ও ফুটপাথে অবৈধ কিছু পেলেই নিলাম, বাধা দিলে দণ্ড ॥ আতিক

প্রকাশিত : 08:54 AM, 5 September 2020 Saturday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

ফুটপাথ ও সড়কে নির্মাণ সামগ্রী বা অবৈধ দোকানসহ কোন কিছু পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিকভাবে তা নিলামে দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। আগামী ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ জোনে একযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিশেষ অভিযান পরিচালনার নির্দেশ দিয়েছেন মেয়র। একই সঙ্গে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান এ কাজে বাধা দিলে সঙ্গে সঙ্গে জেল জরিমানা করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ফুটপাথ ও রাস্তা দখলমুক্ত করতেই এমন কঠোর নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে বলে জানান মেয়র। ফুটপাথ ও রাস্তার দখল উচ্ছেদে নামার পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সভায় ডিএনসিসির কর্মকর্তাদের এ বিষয়ে নির্দেশনা দেন মেয়র। সভায় অন্যদের মাঝে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা, সচিব রবীন্দ্রশ্রী বড়ুয়া, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবদুল হামিদ মিয়া ও সকল আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় মেয়র আতিক বলেন, জনপ্রতিনিধি হিসেবে প্রতিটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের সঙ্গে নিয়ে এসব অভিযান পরিচালনা করতে হবে। একইসঙ্গে স্থায়ী বা অস্থায়ী কোন দোকান বা অবকাঠামো ইত্যাদি পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিকভাবে তা ভাঙতে অভিযানে পে-লোডার ও বুলডোজারসহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী সঙ্গে নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন মেয়র। তিনি বলেন, দখলের সঙ্গে জড়িত কাউকেই কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না। বাধা দিলেও শাস্তি প্রদান করা হবে ও মালামাল জব্দ করার পরপরই প্রকাশ্যে নিলামে দেয়া হবে। উক্ত অর্থ কর্পোরেশনের ফান্ডে জমা হবে। আসন্ন শীতে মশার উপদ্রবমুক্ত নগর গড়ার নির্দেশ দিয়ে মেয়র বলেন, সরকারী বা ব্যক্তি মালিকানাধীন যেসব জলাশয়ে কচুরিপানা পরিষ্কার করা হচ্ছে না, মশা থেকে নগরবাসীকে সুরক্ষা দিতে তাদের অবশ্যই কচুরিপানা পরিষ্কারে বাধ্য করতে হবে। মশা জন্ম নেয়ার আগেই সকল প্রকার কিউলেক্স মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংস করতে হবে। গত বছরের এডিস মশার মতো কিউলেক্স মশার কামড়ে এ বছর যেন কোন নাগরিক কষ্ট না করেন সেদিক বিশেষ মনোযোগ দিতে স্বাস্থ্য বিভাগকে ও আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন মেয়র। এডিস মশার বিরুদ্ধে চলমান বিশেষ অভিযান পরিচালনার জন্য সংশ্লিষ্টদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান ও একইসঙ্গে কার্যক্রম চালু রাখতে নির্দেশ দেন মেয়র। আতিকুল ইসলাম বলেন, অভিযানে রাজধানীর যত্রতত্র বছরের পর বছর ধরে ঝুলে থাকা বিশাল আকৃতির ও ছোট বড় স্থায়ী অস্থায়ী সকল বেসরকারী বা অবৈধ বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধ করতে হবে। এজন্য সকল প্রকার অবৈধ বিলবোর্ড ও বিজ্ঞাপন প্রচারকারীর বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কোন অবৈধ বিজ্ঞাপন বোর্ড স্থাপন করে নগরীর সৌন্দর্য নষ্ট করতে কাউকেই সুযোগ দেয়া হবে না। তিনি যত ক্ষমতাবানই হোক ডিএনসিসির আওতায় এসে প্রচার করতে হবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT