ঢাকা, মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

যুক্তরাষ্ট্রে ফের কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে হত্যা করলো পুলিশ

প্রকাশিত : 06:12 PM, 25 December 2020 Friday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

কয়েক মাস আগে জর্জ ফ্লয়েড নামে এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে নৃশংসভাবে খুন করা হয় আমেরিকায়। সেই মৃত্যুর প্রতিবাদে ঝড় উঠেছিল আমেরিকাজুড়ে।

ফের এক নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে খুন করার প্রতিবাদে গত বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) শামিল হলো সে দেশের বড় অংশের মানুষ। অভিযোগ, এ মাসে এ নিয়ে দু’জন কৃষ্ণাঙ্গকে খুন করেছে পুলিশ।

গত সোমবার তাকে গুলি করে খুন করার অভিযোগ উঠেছে। তার নাম মরিস হিল (৪৭)। ওইদিন রাতে বাড়ির গ্যারেজে ছিলেন তিনি। তখন তাকে পরপর গুলি চালিয়ে মেরে ফেলেন এক পুলিশ অফিসার।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, মরিস ওই অফিসারের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। তার এক হাতে ধরা ছিল মোবাইল। তবে অন্য হাতে কিছু ছিল কিনা, তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না। তবে পরে জানা যায়, তার কাছে কোনো অস্ত্র ছিল না।

কলম্বাস পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত পুলিশ অফিসার অ্যাডাম কয়েরের মনে হয়েছিল মরিসের হাতে বোধ হয় কোনো অস্ত্র রয়েছে। আর তাই তিনি আত্মরক্ষার্থে গুলি চালিয়ে দেন।

কলম্বাসের পুলিশ কর্তা টমাস কুইনল্যান জানিয়েছেন, ওই পুলিশ অফিসারকে বরখাস্ত করা হবে। বিনা কারণে এক নিরপরাধ মানুষের প্রাণ চলে গেছে জানিয়ে তিনি দুঃখ প্রকাশও করেছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এর আগেও এ ধরনের অতিরিক্ত সক্রিয়তা দেখিয়েছিলেন অভিযুক্ত অফিসার। এর আগে গত ৪ ডিসেম্বর কেসি গুডসন নামে এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবক স্যান্ডউইচ হাতে বাড়ি ফেরার সময় তাকে গুলি চালিয়ে মেরে ফেলে পুলিশ। পরে জানা যায়, তার হাতের স্যান্ডউইচকে আগ্নেয়াস্ত্র ভেবে ভুল করেছিল তারা।

এ দুই হত্যার প্রতিবাদে গত বৃহস্পতিবার আমেরিকার সড়কে দেখা যায় মিছিল। ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ লেখা পোস্টার হাতে ছিল তাদের। পুলিশের এ নির্যাতন ও নৃশংসতার বিচার চেয়ে পথে নামেন প্রতিবাদীরা। এভাবে বিনা কারণে নিরপরাধ কৃষ্ণাঙ্গদের মেরে ফেলা যে অত্যন্ত বিপজ্জনক তা জানিয়েছেন আইনজীবী বেন ক্রাম্প। তার কথায়, ‘আবারও একজন কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে দেখে পুলিশ ধরেই নিল তিনি অপরাধী!’ গত মে মাসে জর্জ ফ্লয়েডের গলা হাঁটু দিয়ে চেপে ধরে নৃশংসভাবে তাকে মেরে ফেলেন এক পুলিশ অফিসার। ভিডিওতে ওই নির্মমতা দেখে শিউরে উঠেছিল গোটা বিশ্বের মানুষ। সেই স্মৃতিই যেন আবার ফিরলো বছর শেষে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT