ঢাকা, রবিবার ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

শিরোনাম

মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার বিরোধীতায় সেই ওলামালীগ!

প্রকাশিত : 07:43 PM, 16 November 2020 Monday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

করোনার ছোবল থেকে জনমানুষকে রক্ষায় সরকারের নেয়া সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে উদ্ধট সব দাবি নিয়ে আবার সক্রিয় হয়ে উঠেছে বিতর্কিত সংগঠন ‘বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ’সহ সমমনা ১৩ দল। নতুন করে কনোনার প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষাপটে মসজিদ,মন্দিরসহ সকল উপাসনালয়ে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার সরকারি উদ্যোগের বিরোধীতায় এরা এবার মাঠে নেমেছে। সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আওয়ামী ওলামা লীগের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে ‘মাস্ক পড়লে নামাজ হবেনা, মসজিদে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা যাবেনা’-বলে দাব্ িতোলা হয়েছে।

কেবল তাই নয়, সাম্প্রদায়িক এ গোষ্ঠির মানববন্ধন থেকে একই সঙ্গে বলা হয়েছে, ‘করোনাকে ছোঁয়াচে বলে জামাতী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করে পবিত্র হাদীছ শরীফ অস্বীকার করা যাবেনা। উগ্র সাম্পদ্রায়িক মিথ্যাবাদী সংগঠন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নিষিদ্ধ করতে হবে। মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বর্তমান মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকারের অবমাননাকারী হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ ও বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মত উগ্রবাদী মৌলবাদী হিন্দুদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের অবমাননা ও রাষ্ট্রদ্রোহী আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে।’

এদিকে উগ্র ভাবধারা নিয়ে সক্রিয় থাকা বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ নিজেদের কখনো আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠন আবার কখনো সহযোগী সংগঠন বলে দাবি করলেও তার কোন সত্যতা নেই। আওয়ামী লীগে এই নামে কোন অঙ্গ বা সহযোগী সংগঠনের অস্তিত্ব নেই। এ নামে কোনো পর্যায়ে কোনো ধরনের কমিটি নেই। ‘আওয়ামী ওলামা লীগ’ একাধিকবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়েও জানিয়েছে তাদের অবস্থান। সর্বশেষ বিপিএল নিষিদ্ধ করার দাবি নিয়ে ওলামা লীগ কর্মসূচি দেয়ার পর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক সাংসদ মো. আবদুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিলো, আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, আওয়ামী ওলামা লীগ নামে এই মুহূতে আওয়ামী লীগের কোনো সহযোগী সংগঠন অথবা এই নামে কোনো পর্যায়ে কোনো ধরনের কমিটি নেই।

আওয়ামী ওলামা লীগের নামে ওই ধরনের কর্মকান্ড পরিচালনা করা সম্পূর্ণ অনৈতিক ও বেআইনি। এ ধরনের অনৈতিক ও বেআইনি কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে আওয়ামী ওলামা লীগের নাম ব্যবহার করে আওয়ামী লীগের নীতিবিরোধী কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।

এমন অবস্থানের পরেও সংগঠনটির তৎপরতা বন্ধ নেই। সোমবার করোনার মধ্যে স্বাস্থ্য বিধি লংঘন করে সরকারের নেয়া পদক্ষেপের বিরুদ্ধে কর্মসূচি পালন করেছে তারা। এখানে ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী মওলামা লীগের সভাপতি মাওলানা মুহম্মদ আখতার হুসাইন বুখারী, সাধারণ সম্পাদক কাজী মাওলানা মুহম্মদ আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী, সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদের সভাপতি আলহাজ্জ হাফেজ মাওলানা মুহম্মদ আব্দুস সাত্তার, ওলামা লীগের কার্যকরী সভাপতি মুহম্মদ শওকত আলী শেখ ছিলিমপুরী, দপ্তর সম্পাদক মাওলানা মুহম্মদ আবু বকর সিদ্দিক, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল জলিল প্রমূখ।

কর্মসূচিতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলত করার সরকারি উদ্যোগের বিরোধীতা করে বলা হয়েছে, পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনেই সব ধরণের কঠিন রোগ, বালা-মুসিবত, দুর্যোগ কেটে যাবে। কাজেই বর্তমান স্বাস্থ্য সংকট, অর্থসংকটসহ সব সংকট থেকে মুক্তি দিতে সরকারকে সর্বোচ্চ পৃষ্টপোষকতায় সারা বছর তথা অনন্তকাল পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন করতে হবে। জামাত ও ধর্মব্যবসায়ী মালানারা পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার অপব্যাখ্যা করে করোনাকেও ছোঁয়াচে রোগ ও মহামারী প্রচার করে দেশের সার্বিক পরিস্থিতি জটিল করে তাদের ধর্মব্যবসাভিত্তিক রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চায়। করোনাকে যারা ছোঁয়াচে ও মহামারী বলে তাদের প্রতি ওলামা লীগের কোটি টাকার প্রকাশ্য বাহাসের চ্যালেঞ্জ।

এই নেতাদের মতে, মসজিদে গেলে মাস্ক পড়তে হবে-এ প্রচারণার অর্থ সম্মানিত মসজিদে গেলে করোনা হয়। মসজিদের সম্মান রক্ষার্থে মসজিদে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা যাবেনা। নামাযের মধ্যে মুখমন্ডল খোলা রাখার নির্দেশ রয়েছে। কাজেই মাস্ক পড়লে বা মুখমন্ডল ঢাকলে নামায হবে না। শরীয়তবিরোধী কাজ মাস্ক পড়ার নির্দেশ অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। করোনার অজুহাতে পবিত্র মসজিদ ও মাদরাসা বন্ধ করা, ফাঁক ফাঁক করে নামাজে দাড়ানো, ৫ জনের বেশি মুছল্লী না হওয়া, মাঠে ঈদের জামায়াত করতে না দেয়া ওহাবী-জামাতপন্থীদের ষড়যন্ত্রমূলক ফতওয়া। যা সম্পূর্ণ কুফরী হয়েছে। দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমান এতে সরকারের প্রতি যারপর নাই ক্ষুব্ধ হচ্ছে। এটা অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT