ঢাকা, রবিবার ০৭ মার্চ ২০২১, ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

শিরোনাম
◈ কার্টুনিস্ট কিশোরের শারীরিক পরীক্ষার প্রতিবেদন আজ ◈ কমনওয়েলথের শীর্ষ তিন মহিলা নেতার অন্যতম শেখ হাসিনা ◈ পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে মুক্তিকামী জনগণকে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে ৭ই মার্চের ভাষণ ছিল এক মহামন্ত্র – মোংলায় বক্তরা ◈ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রীনগর উপজেলা প্রশাসনের গভীর শ্রদ্ধা নিবেন ◈ নাটোরে যথাযোগ্য মর্যাদায় ৭ই মার্চ পালিত ◈ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন উপলক্ষে মধুখালীতে বিভিন্ন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত ◈ ইবিতে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত ◈ সিরাজগঞ্জে শাহজাদপুরের গালা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। ◈ রাজশাহীতে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে ধর্ষণকারী গ্রেফতার ◈ হাজীগঞ্জে চাচাতো ভাই পুরুষাঙ্গ ও বোন গলাকেটে ভালোবাসার প্রকাশ

ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক যে কোন সময়ের চেয়ে উষ্ণ, মসৃণ ॥ কাদের

প্রকাশিত : 08:42 AM, 14 September 2020 Monday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ভারত-বাংলাদেশ দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে উষ্ণ, মসৃণ এবং ভবিষ্যতমুখী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার কূটনৈতিক দক্ষতা দিয়ে বৈরিতার বিপরীতে গড়ে তুলেছে আস্থার সম্পর্ক, যা পারস্পরিক উন্নয়ন এগিয়ে নিতে এখন একে অপরের সহায়ক।

রবিবার ভারতীয় ঋণ কর্মসূচীর আওতায় বাস্তবায়নাধীন প্রকল্প এবং অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সংসদ ভবন এলাকার সরকারী বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভায় যুক্ত হন মন্ত্রী। এ সময় অনলাইন প্ল্যাটফরমে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাস, সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মোঃ নজরুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

ভারত-বাংলাদেশ পারস্পরিক উন্নয়ন এগিয়ে নিতে দু’দেশের একে অপরের সহায়ক, তারই ধারাবাহিকতায় ভারতীয় ঋণ কর্মসূচীর আওতায় যৌথভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প সে বিষয়গুলো তুলে ধরেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘ভারত আমাদের বিশ্বস্ত বন্ধু। উভয় দেশের বন্ধুত্ব সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। ভারত আমাদের বড় প্রতিবেশী। প্রতিবেশীর সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলে দু’দেশের মধ্যকার অনেক অমীমাংসিত সমস্যা সহজে সমাধান সম্ভব। তার প্রমাণ ছিটমহল বিনিময় সীমান্ত সমস্যাসহ অনেক সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দীর্ঘদিন দু’দেশের সম্পর্কের কোন কোন সরকার বৈরিতার পর্যায়ে নিয়ে যায়। শেখ হাসিনা সরকার কূটনৈতিক দক্ষতা দিয়ে বৈরিতার বিপরীতে গড়ে তুলেছে আস্থার সম্পর্ক পারস্পরিক উন্নয়ন এগিয়ে নিতে এখন একে অপরের সহায়ক। তারই ধারাবাহিকতায় ঋণ কর্মসূচীর আওতায় আমরা বাস্তবায়ন করছি বেশ কিছু প্রকল্প।

মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টদের উদ্দেশে করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিভিন্ন কারণে ঋণ কর্মসূচীর আওতায় প্রকল্পসমূহের কাজ শুরু হতে বেশি সময় লাগছে। সমীক্ষাসহ প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি শেষ করা, ভারতীয় কর্তৃপক্ষের সম্মতি, ইন্ডিয়ান এক্সিম ব্যাংকের কনকারেন্সসহ আমাদের অংশের কার্যক্রম সবমিলিয়ে প্রত্যাশিত সময়ের চেয়ে বেশি সময় লাগছে। এলওসির আওতায় প্রকল্পগুলোর কাজ এগিয়ে নিতে বিশেষ নজর দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। কারণ প্রকল্পগুলো দু’দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও পারস্পরিক উন্নয়নের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট।

বিএনপিকে মনগড়া মিথ্যাচার বন্ধের আহ্বান ॥ বিএনপির দাবি অনুযায়ী বাদপড়া ৮২ হাজার করোনা রোগীর তালিকা চেয়ে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপির দাবি করেছে সরকার নাকি করোনা রোগীদের পরিসংখ্যানে ৮২ হাজার রোগীর নাম বাদ দিয়েছে। এতে সরকারের কি লাভ আমি জানতে চাই। আমরা বলতে চাই আপনারা বাদ দেয়া ৮২ হাজার রোগীর তালিকা দিন। অন্ধকারে ঢিল ছুড়ে কারও লাভ নেই।’

চিরাচরিত মিথ্যাচার বিএনপির নিজস্ব রাজনৈতিক সংস্কৃতি বলে অভিযোগ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, হত্যা, ষড়যন্ত্র এবং সন্ত্রাস নির্ভরতা বিএনপির রাজনৈতিক ঐতিহ্য। সামনে কোন ইস্যু পাচ্ছে না মিথ্যাচারের, তাই নন-ইস্যুকে তারা ইস্যু বানানোর অপপ্রয়াস চালায়। তিনি বলেন, প্রযুক্তির এ যুগে যখন সবকিছু উন্মুক্ত, তখন ৮২ হাজার রোগীর নাম গোপন করার উদ্ভট ও মনগড়া তথ্য বিএনপির দায়িত্বশীল দলের নেতারা কোথায় পান- আমরা তা জানতে চাই। জনগণও তা জানতে চায়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিসহ অনেকেই বলেছিল করোনায় দেশের লাখ লাখ মানুষের মৃত্যু ঘটবে, রাস্তায় রাস্তায় মানুষ মরে পড়ে থাকবে, খাবার পাবে না, চিকিৎসা পাবে না। অথচ দেশে করোনা সংক্রমণের পাঁচ মাস অতিবাহিত হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও মানবিক নেতৃত্বে এবং আল্লাহর রহমতে এখনও তা হয়নি। তাই বিএনপির গা-জ্বালা করছে। দেশের এবং জনগণের কল্যাণ তাদের অভিধান এবং চর্চায় নেই। মিথ্যাচারই এখন তাদের একমাত্র রাজনৈতিক পুঁজি।

এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহেনাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, ৭৫ পরবর্তী দুঃসময় ও সঙ্কটে শেখ রেহেনা পর্দার অন্তরালে থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের পাশে ছিলেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা শেখ হাসিনার বাস্তবে সহযোদ্ধা হিসেবে পর্দার অন্তরালে কাজ করেছেন। তিনি জন্মদিনে শেখ রেহানার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করেন।

সেতু নারায়ণগঞ্জে, অফিস ঢাকায় কেন? সেতুমন্ত্রী উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের কর্মস্থল ছেড়ে ঢাকায় অবস্থানের সমালোচনা করে বলেন, ‘আমার কাছে অভিযোগ রয়েছে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মরতদের অধিকাংশ ঢাকায় অফিস করেন। সেতু নির্মিত হচ্ছে নারায়ণগঞ্জে, আর প্রকল্পের অফিস কেন ঢাকায়? এটিও প্রকল্প বাস্তবায়নে বিলম্বিত হওয়ার কারণ। প্রকল্প এলাকায় অফিস থাকবে, ঢাকায় নয়।

প্রকল্পকে কেন্দ্র করে নতুন ভবন নির্মাণের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, পুরো ঢাকা শহরজুড়ে বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। এসবের প্রয়োজনীয়তা কতটুকু? যেখানেই যাই সেখানে সড়কের অফিস, প্রকল্পের অফিস। তবে আলাদা করে সড়ক ভবন কেন? ভবিষ্যতে প্রকল্প গ্রহণের সময় ভবনসহ অন্যায় স্থায়ী স্থাপনা নির্মাণের প্রয়োজনীয় খতিয়ে দেখতে পরিকল্পনা উইংকে নির্দেশনা দেন তিনি।

অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে ভারতের সঙ্গে ‘উষ্ণ, মসৃণ এবং ভবিষ্যতমুখী’ সম্পর্ক রয়েছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রতিবেশীর সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলে, পিপলস-টু-পিপল কানেকটিভিটি সুদৃঢ় হলে, দু’দেশের মধ্যকার অনেক অমীমাংসিত সমস্যা সহজে সমাধান সম্ভব। বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতুর কাজও প্রায় শেষ হতে চলেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আশা করা যাচ্ছে এ বছরের শেষ নাগাদ সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হবে। এলওসি ছাড়াও ভারতের অনুদানে বিবিরবাজার থেকে সুয়াগাজি পর্যন্ত সড়ক চারলেনে উন্নীত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT