ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

বাসচালক ও দুই সহযোগীর মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত : 11:12 AM, 2 November 2020 Monday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

বেসরকারী নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ পঞ্চম বর্ষের শিক্ষার্থী সাইদুর রহমান পায়েল হত্যা মামলায় হানিফ পরিবহনের একটি বাসের চালক ও তার দুই সহযোগীর মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করেছে ট্রাইব্যুনাল। রবিবার ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু জাফর মোঃ কামরুজ্জামান এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, হানিফ পরিবহনের বাসচালক মোঃ জামাল হোসেন, সুপারভাইজার মোঃ জনি ও হেলপার ফয়সাল হোসেন।

রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্তরা ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর ট্রাইব্যুনাল তাদের জামিন বাতিল করে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করেন। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ট্রাইব্যুনাল এ মামলার রায়ে চারটি নির্দেশনাও দিয়েছে। এছাড়া চলাচলের অযোগ্য রাস্তা, অদক্ষ চালক ও ফিটনেসবিহীন গাড়িই দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ বলে রায়ের পর্যবেক্ষণে মন্তব্য করেছে ট্রাইব্যুনাল।

২০১৮ সালের ২১ জুলাই রাতে দুই বন্ধুর সঙ্গে হানিফ পরিবহনের একটি বাসে করে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার পথে রওনা হওয়ার পর নিখোঁজ হন পায়েল। ২২ জুলাই মুন্সীগঞ্জ উপজেলার ভাটেরচর সেতুর নিচের খাল থেকে পায়েলের লাশ উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ২৪ জুলাই পায়েলের মামা গোলাম সরওয়ার্দী বিপ্লব মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন। এরপর হানিফ পরিবহনের ওই বাসের সুপারভাইজার জনিকে ঢাকার মতিঝিল এবং চালক জামাল হোসেন ও তার সহকারী ফয়সাল হোসেনকে আরামবাগ থেকে গ্রেফতার করা হয়। আসামিদের আদালতে দেয়া জবানবন্দী থেকে জানা যায়, গাড়ি যানজটে পড়ায় প্রস্রাব করার কথা বলে বাস থেকে নেমেছিলেন পায়েল। বাস চলতে শুরু করলে পায়েল দৌড়ে এসে ওঠার সময় দরজার সঙ্গে ধাক্কা লেগে সংজ্ঞা হারায়। নাক-মুখ দিয়ে রক্ত বের হতে দেখে তাকে হাসপাতালে নেয়ার বদলে তার মুখ থেতলে দিয়ে দায় এড়াতে ভাটেরচর সেতু থেকে নিচের খালে ফেলে বাস নিয়ে ঢাকায় চলে আসেন আসামিরা।

ট্রাইব্যুনালের পর্যবেক্ষণ ॥ সড়ক দুর্ঘটনা দিন দিন হত্যা পর্যায়ে চলে যাচ্ছে। অদক্ষ গাড়িচালক, বেপরোয়াভাবে বাস চালানো, গাড়ি চলাচলের অযোগ্য রাস্তা ও ফিটনেসবিহীন গাড়ি ইত্যাদি কারণেই এই দুর্ঘটনা বেশি ঘটছে। সড়কে প্রতিদিন এত মানুষের মৃত্যু নিছক কি দুর্ঘটনা নাকি হত্যা, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে সর্বসাধারণের মনে। কিছু অদক্ষ, অসচেতন গাড়িচালকদের জন্য সড়কে মৃত্যু বাড়ছেই। রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা পথচারীদেরও পিষে দিতে দ্বিধান্বিত হচ্ছে না কিছু বাস ড্রাইভার। … সাইদুর রহমান পায়েল ঢাকা বারিধারা নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিবিএ ৫ম বর্ষে অধ্যয়নরত ছিল। সে একজন প্রতিভাবান মেধাবী ছাত্র ছিল। উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করে সে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে দেশ ও জাতির সেবায় আত্মনিয়োগের জন্য যখন নিজেকে তৈরি করছিল ঠিক সেই মুহূর্তে বাস ড্রাইভার, সুপারভাইজার ও হেলপারের নির্মমতার শিকার হয়ে তাকে অকালে প্রাণ দিতে হলো।

চার নির্দেশনা ॥

১. গাড়ির চালক, সুপারভাইজার, হেলপারদের গাড়ি চালাতে দেয়ার আগে তারা মাদক সেবন করেছে কিনা, তৎমর্মে ডোপ টেস্ট করতে হবে। গাড়ি ছাড়ার আগে কাউন্টারে, পথিমধ্যে বিরতির স্থানে এবং গাড়ি গন্তব্যে পৌঁছার স্থানে অর্থাৎ এই তিনটি স্থানেই গাড়ির চালক, সুপারভাইজার, হেলপাদের ডোপ টেস্ট করতে হবে।

২. গাড়ির চালক, সুপারভাইজার, হেলপাররা প্রায়ই যাত্রীদের সঙ্গে কর্কশ ও অভদ্র আচরণ করেন। এক্ষেত্রে গাড়ির ড্রাইভার, সুপারভাইজার ও হেলপারদের অবশ্যই যাত্রীদের সঙ্গে নম্র ও ভদ্র আচরণ করতে হবে এবং গাড়ির চালক, সুপারভাইজার, হেলপারদের গাড়ি চালানোর বিষয়ে এবং যাত্রীদের সঙ্গে কাউন্সিলিংয়ের বিষয়ে উচ্চতর ট্রেনিং বা প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

৩. মহাসড়কে প্রতি তিন কিলোমিটার পর পর গাড়ির চালক, সুপারভাইজার, হেলপার ও যাত্রী সাধারণের ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক ফ্রি আধুনিক বাথরুম ও টয়লেট স্থাপন করতে হবে। তবে এজন্য বাসমালিকরা সরকারের সড়ক বিভাগের সঙ্গে আলোচনাপূর্বক সরকার নির্ধারিত হারে বার্ষিক চাঁদা প্রদান করতে হবে সরকারকে।

৪. মহাসড়কে সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে যানবাহন চলাচলের ওপর মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে। উল্লেখিত বিষয়গুলোর বিষয়ে বাসমালিক, ড্রাইভার, সুপারভাইজার ও হেলপার এবং যাত্রী সাধারণকে সচেতন হতে হবে বলে উল্লেখ করেন বিচারক

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT