ঢাকা, শুক্রবার ২২ জানুয়ারি ২০২১, ৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

বাংলাদেশ রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় অফিসের প্রথম রেলওয়ে দিবস পালন

প্রকাশিত : 01:44 PM, 18 November 2020 Wednesday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

রেলওয়ের সেবা জনমুখি করতে রেলওয়ে দিবস পালনের পর আজ বুধবার সকালে পাকশী বিভাগীয় প্রকৌশলী/১ অফিসে প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিভাগীয় প্রকৌশলী/১ বরিবলমন্ডল ও প্রেসব্রিফিংয়ে বক্তব্য দেন, পাকশী বিভাগের টেলি যোগাযোগ ও সংকেত বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী রুবাইয়াত শরীফ প্রান্ত। তারা বলেন, ১৫৮ বছর পর মুজিব বর্ষে রেলওয়ের সেবা আরও জনমুখি করে তুলতে বাংলাদেশ রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় অফিসের পক্ষ থেকে প্রথম রেলওয়ে দিবস পালন করেছে। বিগত ১৮৬২ সালের ১৫ নবেম্বর চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা থেকে কুষ্টিয়া জেলার জগতি পর্যন্ত ৫৩ কিলোমিটার ব্রডগেজ রেললাইন চালু করে। এসময়ই মূলত: বাংলাদেশে প্রথম রেল চলাচল শুরু করা হয়। এই রেল চলাচল শুরুর মধ্য দিয়েই বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে প্রথম রেলওয়ে সম্পর্কে ধারনা জন্মায়। এর পর ক্রমান্বয়ে বাংলাদেশে রেলওয় সেবা সম্প্রসারণ হতে থাকে। এক পর্যায়ে পাকশীতে গড়ে ওঠে ভারত বর্ষের মধ্যে চলাচলকারী রেলওয়ে ট্রেনের নিয়ন্ত্রণ অফিস। সে সময় পাকশী হয়ে ওঠে রেলওয়ের ঐতিহাসিক শহর। পরবর্তীতে কালের বিবর্তণে ভারত বর্ষের সেই ঐতিহাসিক রেলওয়ের নিয়ন্ত্রক পাকশী অফিসের ইতিহাস হারিয়ে যায়। স্বাধীনতার পর বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্রমান্বয়ে সম্প্রসারণ অব্যাহত তাকলেও মাজপথে অনেকটা স্থবির হয়ে যায়। কিন্তু বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর দেশের ও মানুষের উন্নয়ন করতে হলে রেলওয়ের উন্নয়নের বিকল্প নেই বলে উপলব্ধি করতে পেরে আলাদা রেলওয়ে মন্ত্রনালয় গঠনের মাধ্যমে অব্যাহতভাবে সম্প্রসারণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। মাজ পথে ১৮৬২ সালের পর দীর্ঘ সময় অতিক্রম হলেও রেলওয়ে দিবস পালন করা হয়নি। কেউ কখনও বিষয়টি নিয়ে কাজ করেছেন এমন নজিরও কোথাও পাওয়া যায়নি। বর্তমান উন্নয়নে সরকার দেশ ও মানুষের কল্যাণে -সেবা, নিরপত্তা, গতি, সময়ানুবর্তিতা ও প্রচেষ্টাকে আরও বৃদ্ধি করে রেলওয়ের সেই হারিয়ে যাওয়া ইতিহাসকে রেলওয়ে দিবস পালনের মাধ্যমে জনসম্মুখে তুলে এনেছেন রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। গত ১৫ নবেম্বর রবিবার বিকেলে দেশের প্রথম কুষ্টিয়ার জগতি রেলওয়ে স্টেশনে দিবসটি পালন উপলক্ষে আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। কেক কেটে এবং বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে দিবসটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। পরে স্টেশন চত্বরে রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় প্রকৌশলী/১ বীরবল মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনাসভা। এসব অনুষ্ঠানে পাকশী বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শহিদুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রেলওয়ে পাকশী বিভাগের ডিএমই ক্যারেজ মমতাজুল ইসলাম, রেলওয়ে পাকশী বিভাগের ডিএমই লোকো আশিষ কুমার, রেলওয়ে পাকশী বিভাগের বৈদ্যুতিক বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী রিফাত শাকিল এবং রেলওয়ে পাকশী বিভাগের টেলি যোগাযোগ ও সংকেত বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী রুবাইয়াত শরীফ প্রান্ত ও রেলওয়ে পাকশী বিভাগের বৈদ্যুতিক বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী রিফাত শাকিল ।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT