ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১, ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

ফাইভ-জির মাধ্যমে কৃষি-শিল্পে বিপ্লব সম্ভব : মোস্তাফা জব্বার

প্রকাশিত : 10:26 AM, 30 April 2021 Friday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ফাইভ-জি শুধু উচ্চগতির ডিজিটাল সংযোগই নয়, বরং এটি ডিজিটাল যুগের আধুনিক প্রযুক্তির ব্যাকবোন (মেরুদ-)। এটি ব্যবহারে জীবনের সব ক্ষেত্রসহ কৃষি ও শিল্পে বৈপ্লবিক পরিবর্তন করা সম্ভব।

বৃহস্পতিবার ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে হুয়াওয়ে ক্যারিয়ার কংগ্রেস-২০২১ এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে হুয়াওয়ে। মোস্তাফা জব্বার বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে ফাইভ-জি যুগে প্রবেশে বাংলাদেশ সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। এর ফলে নতুন যুগ তৈরি করবে, যা হবে কৃষি-শিল্প ও তথ্যযুগের পরের যুগ। তিন শিল্প বিপ্লব মিস করার পরও ডিজিটাল যুগে নেতৃত্ব দেয়ার উপযোগী করে বাংলাদেশকে গড়ে তুলছি আমরা।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের চেয়ারম্যান শ্যামসুন্দর সিকদার, হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের সিইও ঝুয়াং ঝ্যাংজুন, ওয়াইন্ড স্পেস কনসালটিংয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক স্কট ডব্লিউ মাইন হ্যান, আইটিইউ এর এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের আঞ্চলিক কার্যালয়ের কর্মকর্তা আমির রিয়াজ বক্তব্য রাখেন।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী গত ২০১৮ সালে দেশে ফাইভ-জি পরীক্ষা সম্পন্ন করায় হুয়াওয়ের সহযোগিতার প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, এটি ছিল আমাদের জন্য খুব বড় একটি অভিজ্ঞতা। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব আহমেদ ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শে আমরা ২১সালের মধ্যে ফাইভ-জি চালুর লক্ষ্য নির্ধারণ করে যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি পুরো পৃথিবীর কাছে অনুকরণীয় উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় গত ১২ বছরে বাংলাদেশ ডিজিটাল সংযোগ প্রতিষ্ঠায় যুগান্তকারী পরিবর্তন ঘটিয়েছে। কোভিডকালে ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির প্রয়োজনীয়তা দেশের জনগণ উপলব্ধি করেছেন। এই কর্মসূচির কারণে বৈশ্বিক মহামারিতেও মানুষের জীবনযাত্রা থেমে থাকেনি। স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় মানুষের ইন্টারনেট ব্যান্ডউডথের দ্বিগুণ চাহিদা বেড়েছে।

তিনি বলেন, দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক সংযোগ স্থাপন প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। শতকরা ৯৮ ভাগ মোবাইল নেটওয়ার্ক ফোর-জি নেটওয়ার্কের আওতায় আনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ভিশন বাস্তবায়নে হুয়াওয়েসহ মোবাইল অপারেটরদের সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন মন্ত্রী। চতুর্থ শিল্প বিপ্লব কিংবা ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের যুগে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে উদ্ভাবন।

যে যত বেশি উদ্ভাবন করবে, তত বেশি লাভবান হবে- বলেন মন্ত্রী। এছাড়া উদ্ভাবন ও তা বাস্তবায়ন করতে সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতার দেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি। এসময় বক্তারা প্রযুক্তির চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনার নানা দিক তুলে ধরেন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT