ঢাকা, মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

নাফ নদী থেকে ৯ বাংলাদেশি জেলেকে ধরে নিয়ে গেছে বিজিপি

প্রকাশিত : 08:35 AM, 11 November 2020 Wednesday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

কক্সবাজারের টেকনাফে নাফ নদীতে মাছ ধরার সময় মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) সদস্যরা ৯ জন বাংলাদেশি জেলেসহ একটি মাছ ধরার নৌকা ধরে নিয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার বিকেলে নাফ নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় এ ঘটনা ঘটে।

ধরে নিয়ে যাওয়া জেলেরা হলেন -টেকনাফের সাবরাং এলাকার জেলে মো. নুরুল আলম, মো. ইসমাইল হেসেন, মো. ইলিয়াছ, মো. ইউনুছ আলী (২৫), মোহাম্মদ কালা ওরফে কালাবদা, সাইফুল ইসলাম, সলিমুল্লা, মো. কামাল মিয়া (২০) ও মো. লালু মিয়া (৩০)।

টেকনাফের সাবরাং ইউপির ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মোহাম্মদ নুরুল আমিন ও নৌকার মালিক মোহাম্মদ আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মঙ্গলবার ভোর চারটার দিকে নাফ নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপ ঘোলাপাড়ার মোহাম্মদ আমিনের মালিকানাধীন একটি নৌকা নিয়ে ৯ জেলে মাছ ধরতে যান। মাছ ধরার সময় নৌকাটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়লে নাফ নদী ও সাগরের মোহনায় নৌকাটি ভাসতে থাকে। বেলা তিনটার দিকে বিজিপির সদস্যরা ভাসমান অবস্থায় নয়জন জেলেসহ নৌকাটিকে অস্ত্রের মুখে মিয়ানমারের হাসসুরাতা সীমান্তচৌকিতে নিয়ে যান।

নৌকার মাঝি মোহাম্মদ কালা ওরফে কালাবদা মোবাইল ফোন যোগাযোগে বিষয়টি নৌকার মালিক মোহাম্মদ আমিনকে জানিয়েছেন।

জানতে চাইলে টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান সাংবাদিকদের বলেন, নৌকাসহ জেলেদের ফেরত চেয়ে বিজিপির ২ নম্বর ব্যাটালিয়নের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT