বৃহস্পতিবার ২৬ মে ২০২২, ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নগরীর সড়কে ঢলে গেছে বৈদ্যুতিক খুঁটি

প্রকাশিত : 11:17 PM, 29 June 2021 Tuesday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

অনলাইন ডেস্ক:রাজশাহী নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কের পাশে হঠাৎ করে দুটি বিদ্যুতের খুঁটি ঢলে পড়েছে। কাত হয়ে গেছে আরও দুটি। এছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে আরও অন্তত ১৫টি। রাজশাহী কলেজের সামনে থেকে জাদুঘর মোড় পর্যন্ত সড়কের দুপাশের বৈদ্যুতিক খুঁটিগুলো এখন এভাবেই আছে।এই রাস্তাটি সম্প্রাসরণ করছে সিটি করপোরেশন। আর সেখানে পানির পাইপ বসাচ্ছে ওয়াসা। বিদ্যুতের খুঁটি না সরিয়েই রাস্তা সম্প্রসারণ ও খোঁড়াখুঁড়ির কারণে গোড়া থেকে মাটি সরে গেছে। এখন বৃষ্টিতে খুঁটিগুলো কাত হতে শুরু করেছে।জানা গেছে, সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে দুটি খুঁটি ঢলে পড়ে। আরও দুটি খুঁটি অল্প করে কাত হয়ে যায়। হেলে যাওয়া দুটি খুঁটি রাস্তায় যাতে না পাড়ে, সে জন্য বাঁশের ঠেকা দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি এ দুটি খুঁটির বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে সড়কে পড়ে আছে। রাজশাহী কলেজের ছাত্রাবাসের সামনে আরেকটি খুঁটি যেন না পড়ে, সে জন্য সীমানাপ্রাচীরের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছে।স্থানীয়রা জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে হালকা বৃষ্টি হচ্ছিল। তখন দুটি খুঁটি হেলে যায়। এতে তারও ছিঁড়ে যায়। তখন বিদ্যুৎও ছিল। নর্দান পাওয়ার সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেডের (নেসকো) কার্যালয়ে ফোন করা হলে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করা হয়। প্রায় তিন ঘণ্টা দুটি ফিডারের বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকে। এতে প্রায় সাত হাজার গ্রাহক দুর্ভোগ পোহান। পরে বিকল্প উপায়ে রাজশাহী কলেজের আশপাশের এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়।নেসকোর নির্বাহী প্রকৌশলী অনিক রায় বলেন, খুঁটি হেলে পড়ার পর আমরা বিকল্প উপায়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু রেখেছি। বিষয়টি সিটি করপোরেশনকে জানিয়েছি। তাদের ঠিকাদার খুঁটি ঠিক করে বসিয়ে দেবে। মঙ্গলবার কাজ করার ছিল। বৃষ্টির কারণে হয়নি।তবে এই ক্ষতি সিটি করপোরেশনের জন্য হয়নি বলে দাবি করেন রাসিকের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নূর ইসলাম। তিনি বলেন, আমাদের জন্য খুঁটি হেলে পড়বে কেন? আমরা তো রাস্তা সম্প্রসারণের কাজ বন্ধই রেখেছি। আগে বিভিন্ন সড়কে পাইপ পুঁতে নেয়ার জন্য ওয়াসাকে বলা হয়েছে। ওয়াসার কাজের জন্য বৈদ্যুতিক খুঁটি হেলে পড়েছে।রাজশাহী ওয়াসার প্রধান প্রকৌশলী পারভেজ মামুদ বলেন, আমার নির্বাহী প্রকৌশলী আমাকে জানিয়েছেন বিদ্যুতের খুঁটি হেলে পড়ার সঙ্গে আমাদের দোষ নেই। সেটা সিটি করপোরেশনের কাজের কারণেই হয়েছে। তারপরও সিটি করপোরেশন যেহেতু বলছে, আমরা বিষয়টা দেখব।

 

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT