ঢাকা, শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

দুই সপ্তাহের মধ্যে বাজারে রাশিয়ার ভ্যাকসিন মতবিরোধে রুশ চিকিৎসকের পদত্যাগ

প্রকাশিত : 09:44 PM, 16 August 2020 Sunday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

রাশিয়ার তৈরি করোনা প্রতিরোধক ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক-ভি’ দুই সপ্তাহের মধ্যে রাশিয়ার বাজারে ছাড়া হচ্ছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘোষণা দিয়েছে। এই ভ্যাকসিন নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছে। গত শুক্রবার ভিয়েতনামও এ ভ্যাকসিন কেনার জন্য নাম নিবন্ধন করেছে। এদিকে বিশ্ববাসীকে স্বস্তি দিতে চীনের ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট সিনোফার্মের ভ্যাকসিনও সাফল্যের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। সূত্র : রয়টার্স, বিবিসি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গত শুক্রবার ঘোষণা দিয়েছে, তারা তাদের কভিড-১৯ ভ্যাকসিনের উৎপাদন শুরু করে দিয়েছে। দুই সপ্তাহের মধ্যেই এ ভ্যাকসিন বাজারজাত করা হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাই মুরাস্কো জানিয়েছেন, ভ্যাকসিন প্রদানের ক্ষেত্রে প্রত্যাশিতভাবেই রাশিয়া তার নাগরিকদের আগে প্রাধান্য দিতে চলেছে। এরপর অভ্যন্তরীণ বাজারের চাহিদা মিটিয়ে ভ্যাকসিন বিদেশে পাঠানো হবে।

রাশিয়ার ভ্যাকসিন কিনছে ভিয়েতনামও : ভিয়েতনাম রাশিয়ার কভিড-১৯ টিকা কিনতে নাম নিবন্ধন করেছে বলে জানিয়েছে কমিউনিস্ট পার্টিশাসিত দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ ভিয়েতনামে টানা কয়েক মাস স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত কোনো রোগী পাওয়া না গেলেও সম্প্রতি সেখানে নতুন করে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছে। পরিস্থিতি সামলাতে দেশটি রাশিয়ার টিকার দিকে ঝুঁকেছে বলে ভিয়েতনাম টেলিভিশনের (ভিটিভি) প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাপী ২০টির মতো দেশ এরই মধ্যে রাশিয়ার টিকা নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এর বাইরে থাকা ভিয়েতনামও টিকাটির ৫-১৫ কোটি ডোজ পেতে চুক্তি করেছে। ভিয়েতনামের তুওই ত্রে পত্রিকা বলছে, এর মধ্যে কিছু টিকা রাশিয়া ‘অনুদান’ হিসেবে দেবে, বাকিগুলোর দাম দেবে ভিয়েতনাম। চীনা ভ্যাকসিনে তৈরি হচ্ছে অ্যান্টিবডি : তৃতীয় ধাপে ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে এগিয়ে রয়েছে চীনের ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট সিনোফার্ম। সম্প্রতি সৌদি আরবে শুরু হয়েছে তাদের তৈরি ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল। প্রথম দুই ধাপে এটি কেমন কাজ করেছে তার ফলাফল প্রকাশ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। সিনোফার্ম জানিয়েছে, প্রথম ধাপে ৯৬ জনকে অল্প ডোজে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল। দ্বিতীয় ধাপে দেওয়া হয়েছে ২২৪ জনকে। এ পর্যায়ে ডোজের পরিমাণ সামান্য বাড়ানো হয়। এতদিন পর্যবেক্ষণে ছিলেন স্বেচ্ছাসেবকরা। প্রত্যেকের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা গেছে, ভ্যাকসিন প্রয়োগের ফলে তাদের শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। সিনোফার্মের গবেষকরা জানিয়েছেন, এই ভ্যাকসিন শরীরে প্রবেশ করে রক্তের বি-লিম্ফোসাইট কোষ তথা বি-সেলকে সক্রিয় করে তুলছে। ফলে রক্তে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে, পাশাপাশি টি-সেলও সক্রিয় হয়েছে। টি-সেল হলো শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতার মূল অস্ত্র। শরীরে ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া বা প্যাথোজেন ঢুকলে সেটি মোকাবিলায় টি-সেল শরীরের স্বাভাবিক রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। ফলে শরীরে ঢোকা ভাইরাল অ্যান্টিজেনকে আটকাতে একটা সুরক্ষা বলয় তৈরি হয়। যে কোনো ভ্যাকসিন গবেষণার মূল লক্ষ্যই থাকে বি-সেল ও টি-সেলকে সক্রিয় করে এই সুরক্ষা বলয় তৈরি করা। সিনোফার্মের দাবি, তাদের তৈরি ভ্যাকসিন এই কাজ ঠিকভাবেই করছে। চীনের ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের দাবি, এই ভ্যাকসিন মানুষের জন্য পুরোপুরি নিরাপদ।

ভ্যাকসিন নিয়ে মতবিরোধে রুশ চিকিৎসকের পদত্যাগ : করোনার টিকা তৈরিতে চিকিৎসাবিজ্ঞানের নৈতিকতার ‘গুরুতর লঙ্ঘন’ হওয়ার অভিযোগ তুলে এনে অধ্যাপক আলেকজান্ডার চুচালিন নামে এক রুশ শীর্ষ চিকিৎসা কর্মকর্তা পদত্যাগ করেছেন। তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নৈতিকতাবিষয়ক পরিষদ থেকে পদত্যাগ করেন। তিনি দাবি করেছেন, ‘স্পুটনিক ৫’ তৈরিতে গুরুতর সব অনিয়ম হয়েছে। সূত্র : বিজনেস টুডে ও টাইমস নাউ নিউজ ডট কম।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT