ঢাকা, রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

ঠিক সময়ে শুটিং শেষ না হলে পারিশ্রমিক দ্বিগুণ!

প্রকাশিত : 08:18 PM, 29 July 2021 Thursday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

পরিচালক রাকেশ ওম প্রকাশ মেহরা তার আত্মজীবনীতে তুলে এনেছেন বলিউডের অনেক ঘটনা। এর মধ্যে বিখ্যাত ‘রং দে বসন্তি’ নিয়ে উল্লেখ করেছেন অজানা ও মজার অনেক তথ্য।

এ ছবির মূল চরিত্রে ছিলেন আমির খান। রাকেশ জানান, চুক্তির সময় অদ্ভুত একটি শর্ত দিয়েছিলেন অভিনেতা। তার ডেট পাওয়া যে কতটা দুর্লভ, এই ঘটনা থেকেই তা স্পষ্ট হয়ে যায়।

আমির খানের একটাই শর্ত ছিল, সময়ের মধ্যে ছবির শুটিং শেষ না হলে পারিশ্রমিক দ্বিগুণ করে দেবেন। ওই সময়ে তিনি ৪ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিতেন। অর্থাৎ, পরিচালক শর্ত রাখতে না পারলে সেই অঙ্ক ৮ কোটি হয়ে যাবে।

রাকেশের মতে, আমিরের মতো দূরদর্শী মানুষ ইন্ডাস্ট্রিতে খুব মানুষই আছেন। একটা সৃজনশীল কাজে মধ্যে কোনো ঠিক পদক্ষেপ, কোন পদক্ষেপ ভুল হতে পারে, তা আগে থেকেই আঁচ করতে পারেন তিনি। ১০ দিন বেশি শুটিং করার প্রয়োজন পড়লে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া তার পক্ষে সহজ হয়েছে কারণ আমিরকে তিনি পাশে পেয়েছিলেন। শুটিংয়ের সময়ে কখনো আমিরের মধ্যে ইগো দেখেননি রাকেশ।

তার মতে, আমির খানের কাছে চিত্রনাট্যই শেষ কথা বলবে। তার জন্যে তিনি সব করতে পারেন। রাকেশের অকপট স্বীকারোক্তি, আমির খান ছাড়া ‘রং দে বসন্তি’র স্বপ্ন কখনো বাস্তবে পরিণত হতো না।

একই বইয়ে জানান, ছবির গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রের জন্য অডিশন দেন ড্যানিয়েল ক্রেইগ। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সরে দাঁড়ান। কারণ, তখন হাতে এসে যায় জেমস বন্ডের প্রস্তাব। এ ছাড়া প্রথমে হলিউডের সংগীত পরিচালক নেওয়ার কথা থাকলেও পরে এ আর রহমান যোগ দেন টিমে। আর ছবির সেই সব এখনো ভীষণ জনপ্রিয়।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT