মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জলবায়ু ঝুঁকির হাত থেকে পৃথিবীকে বাঁচানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত : 07:43 AM, 25 May 2021 Tuesday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

জলবায়ু ঝুঁকির হাত থেকে পৃথিবীকে বাঁচাতে সম্মিলিত লড়াইয়ের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের জন্য টেকসই ও প্রকৃতিভিত্তিক সমাধানে কমনওয়েলথ অগ্রণী ভূমিকা নিতে পারে। সোমবার প্রিন্স অব ওয়েলস চার্লস ফিলিপ আর্থার জর্জের আহ্বান করা ‘এশিয়া রিজিওনাল কমনওয়েলথ হেডস অব গভর্নমেন্টের’ গোলটেবিল আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। গণভবন থেকে তিনি ভার্চুয়ালি আলোচনায় অংশ নেন।

আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিন দফা প্রস্তাব দেন। এর মধ্যে বিশ্বব্যাপী টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, কার্বন নিরপেক্ষ প্রযুক্তিবিদ্যার ওপর জোর দেওয়া এবং জলবায়ু অভিযোজন ব্যবস্থার জন্য জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোকে আর্থিকভাবে সহায়তা করা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এছাড়া কমনওয়েলথের সদস্য এবং সিভিএফের (জলবায়ু ক্ষতিগ্রস্ত ফোরাম) চেয়ারম্যান হিসাবে শেখ হাসিনা জলবায়ু ঝুঁকির বিরুদ্ধে কার্যকরভাবে লড়াই করার জন্য সিওপি ২৬ এর আগে কয়েকটি পদক্ষেপের পরামর্শ দেন। প্রথম পরামর্শে বিশ্বব্যাপী সবুজ ও টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির বিকাশের পক্ষে তার মতামত তুলে ধরেন এবং সুদিনের প্রত্যাশায় বৃত্তাকার অর্থনীতিতে বিনিয়োগের কথা বলেন। দ্বিতীয় পরামর্শে, তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর প্রতি বিশেষ মনোযোগ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কমনওয়েলথ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে জ্ঞান ও প্রযুক্তি স্থানান্তরের বিধানসহ কার্বন নিরপেক্ষ প্রযুক্তির ওপর জোর দেওয়ার আহ্বান জানান। তৃতীয় পরামর্শে প্রধানমন্ত্রী জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোকে প্রশমন কার্যক্রম গ্রহণের ক্ষেত্রে জলবায়ু তহবিল থেকে সহায়তা দেওয়ার কথা বলেন। গৃহহীনদের আশ্রয় প্রদানকে এসব পিছিয়েপড়া জনগোষ্ঠীর দারিদ্র্য ও জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি হ্রাসের সর্বোত্তম কৌশল হিসাবে অভিহিত করে প্রধানমন্ত্রী সবার প্রতি গৃহহীনদের আশ্রয় প্রদানের জন্য আহ্বান জানান।

সিভিএফ’র চেয়ার শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের কোভিড-১৯ পরবর্তী প্রজন্ম এবং ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীগুলোর জন্য সমতা-ভিত্তিক, সহনশীল ও সবুজ প্রাকৃতিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধভাবে ব্যবহার না করা পর্যন্ত ‘বাস্তবিক অর্থে প্রকৃতির বিরুদ্ধে এ লড়াইয়ে আমরা হেরেই যাব। তিনি আরও বলেন, বিশ্ব আজ এক নজিরবিহীন মহামারি পরিস্থিতি অতিবাহিত করছে এবং এ বৈশ্বিক মহামারি পরিস্থিতি এখনো অনিশ্চিত অবস্থায় রয়েছে-বাংলাদেশও এর বাইরে নয়।

‘মাদার নেচার’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকের আহ্বান করায় প্রিন্স অব ওয়ালেসকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘আপনাদের টেরাকার্টা সাসটেইনেবল মার্কেটস উদ্যোগ; একতা, লক্ষ্য, টেকসই ও স্থায়িত্ব এবং সমন্বিত কার্যক্রমে কমনওয়েলথের বিভিন্ন সমন্বিত পদক্ষেপের প্রতি বাংলাদেশ আন্তরিকভাবে সংহতি প্রকাশ করছে।’

চেয়ার অব দ্য ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম-সিভিএফ (ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম) এবং সাউথ এশিয়ান আঞ্চলিক অফিস জিসিএ’র আয়োজক হিসাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তারা জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর স্বার্থ ও স্থানীয়ভাবে কীভাবে এ অভিযোজন সমাধান করা হয়েছে তা তুলে ধরছেন। পাশাপাশি, নদী ভাঙনের কারণে বাস্তুচ্যুত মানুষের পুনর্বাসন এবং অনিশ্চিত জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগসহনশীল ও টেকসই গৃহ নির্মাণ করছেন।

সূত্র যুগান্তর

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT