শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২, ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ইন্দোনেশিয়ার সাবমেরিনের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে

প্রকাশিত : 09:24 AM, 25 April 2021 Sunday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

বালি সাগরে ডুবে যাওয়া ইন্দোনেশিয়ার সাবমেরিনের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে। শনিবার ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনীর চিফ অব স্টাফ অ্যাডমিরাল ইউদো মারগোনো এ কথা জানিয়েছেন। খবর আল-জাজিরা, নিউইয়র্ক টাইমসের। টর্পেডো মহড়ায় অংশ নিয়ে বুধবার নিখোঁজ হয় কেআরআই নাঙ্গগালা-৪০২ নামের ওই সাবমেরিনটি। সাবমেরিনটিতে ৭২ ঘণ্টার অক্সিজেন ছিল। তিনদিনের বেশি সময় পার হয়ে গেলেও সাবমেরিনটিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে শনিবার ওই সাবমেরিনের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে। উদ্ধারকারীরা জানিয়েছেন, তারা সাবমেরিনের ভেতরে থাকা বিভিন্ন আইটেম যেমন স্পঞ্জেস, গ্রিজ বোতল এবং নামাজের জন্য ব্যবহৃত সামগ্রী পেয়েছেন। তবে ক্রু সদস্যদের দেহ এখনও পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন অ্যাডমিরাল ইউদো। জার্মানির তৈরি কেআরআই নাঙ্গগালা-৪০২ সাবমেরিনটি পানির ৫০০ মিটার নিচে চাপ সহ্য করার ক্ষমতা রয়েছে। তবে পানির ৮৫০ মিটার নিচে সাবমেরিনটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে। যা তার চাপ সহ্য করার ক্ষমতার চেয়েও অনেক বেশি নিচে। ইন্দোনেশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ার উদ্ধারকারীরা বেশ কয়েকদিন ধরে সাবমেরিনটির খোঁজ চালিয়ে যাচ্ছিল। তাদের হাতে সময় কম ছিল। কারণ সাবমেরিনটিতে তিনদিনের অক্সিজেন মজুদ ছিল। তবে শনিবার সকালই সেই সময়সীমা শেষ হয়ে যায়। এর কয়েক ঘণ্টা পর সাবমেরিনের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেলো। এ আগে খবরে বলা হয়, ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনীর নিখোঁজ সাবমেরিন কেআরআই নাঙ্গালা-৪০২ এর ৫৩ আরোহীর সবাই মারা গেছে বলে ধারণা করছে উদ্ধাকারী দল। শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষাবিষয়ক সদর দফতর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই শঙ্কার কথা জানান। জন কিরবি বলেন, সাগরের যে অংশে সাবমেরিনটি ডুবেছে বলে ধারণা করা হয়েছিল, সেখানে তেল ভাসতে দেখা গেছে। তেলের ট্যাংকে ছিদ্রের ফলেই সেটি আর এগোতে পারেনি। হয়তো আরোহীদের সবার সলিলসমাধি ঘটেছে। তবে সেটি খুঁজতে গিয়ে এক অজানা বস্তু পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে দেশটির নৌবাহিনী। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাবমেরিনটির অক্সিজেন শেষ হয়ে যাবে বলে কর্মকর্তাদের বরাতে বিভিন্ন প্রতিবেদনে উল্লেখ করছে বৈশ্বিক গণমাধ্যম। শনিবারের মধ্যে নিখোঁজ সাবমেরিনটির অক্সিজেন নিঃশেষ হয়ে যাবে। তাই ৫৩ আরোহীকে বাঁচাতে হলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাবমেরিনটি উদ্ধার করতে হবে। দেশটির সেনাবাহিনীর কেন্দ্রীয় তথ্য ইউনিটের প্রধান মেজর জেনারেল আসমাদ রিয়াদ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনী ৫০ থেকে ১০০ মিটার গভীরে ‘শক্ত চুম্বক’ জাতীয় একটি অজানা বস্তু খুঁজে পেয়েছে। রিগুয়েল নামে একটি উচ্চ প্রযুক্তির যুদ্ধজাহাজ অনুসন্ধানের জায়গায় ইতোমধ্যে পৌঁছে গেছে এবং অনুসন্ধান শুরু করেছে। জাহাজটি বস্তু শনাক্ত করতে শব্দ তরঙ্গ ব্যবহার করে। আল-জাজিরা, নিউ ইয়র্ক টাইমস, রয়টার্স, সিএনএন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT