ঢাকা, মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

ইথিওপিয়ায় সেনা অভিযানে ৪২ সন্ত্রাসী নিহত

প্রকাশিত : 06:14 PM, 25 December 2020 Friday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

ইথিওপিয়ার সামরিক বাহিনী পশ্চিম বেনিশানুল-গুমুজ অঞ্চলে একটি গণহত্যায় অংশ নেওয়ার অভিযোগে ৪২ জন সশস্ত্র সন্ত্রসীকে হত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার দেশটির রাষ্ট্রীয় অনুমোদিত টিভি চ্যানেল ফানা টিভি এ তথ্য জানিয়েছে। এর আগে গত বুধবার, দেশের মানবাধিকার কমিশন জানিয়েছিল যে বন্দুকধারী সন্ত্রসীরা বেনিশানুল-গুমুজের বেকোজি গ্রামে হামলা চালিয়েছে। এ হামলায় ঐ গ্রামের শতাধিক মানুষকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানায় তারা।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী অ্যাবি আহমেদ টুইট করে জানান, খুবই দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছে। সরকার আগে এখানকার সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেছে। কিন্তু তা সফল হয়নি। এখন পরিস্থিতি সামলাতে সেনাবাহিনী পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় কর্মকর্তাদের দাবি, ওই সন্ত্রাসী হামলার পর এলাকায় সেনা অভিযান হয়েছে। ৪২ জন সন্ত্রাসী সেনা অভিযানে মারা গেছে।

আন্তর্জাতিক সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জানিয়েছে, ইথিওপিয়ায় জাতিগত সংঘর্ষ হয়েছে। সেই ভয়ঙ্কর ঘটনায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। অ্যামনেস্টির দাবি, জাতিগত সংখ্যালঘুদের উপর হামলা বন্ধ করতেই হবে ইথিওপিয়া সরকারকে।

প্রধানমন্ত্রী অ্যাবি আহমেদ ২০১৮ সালে ক্ষমতায় আসার পর ইথিওপিয়ায় সহিংস ঘটনার সংখ্যা অনেক বেড়েছে। প্রধানমন্ত্রী দেশে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা চালু করেছেন। তার ফলে বিভিন্ন অঞ্চলে কেন্দ্রীয় যে নিয়ন্ত্রণ ছিল তা অনেকটাই কমে গেছে। ফলে আঞ্চলিক স্তরের বিভেদ সংঘর্ষে পরিণত হচ্ছে। বেনিশানগুল-গুমুজ এলাকায় এই সহিংসতার কারণ, জমির উপর অধিকার প্রতিষ্ঠা। সূত্র : আলজাজিরা।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT