ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১, ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

ইতিহাস সৃষ্টি কমলার

প্রকাশিত : 06:00 PM, 8 November 2020 Sunday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম নারী কৃষ্ণাঙ্গ ভাইস প্রেসিডেন্ট হতে চলেছেন কমলা হ্যারিস। এ রেকর্ড করার আগেই অবশ্য আরো দুটি ইতিহাস সৃষ্টি করে ফেলেছেন তিনি। কমলা ছিলেন ক্যালিফোর্নিয়ার প্রথম কৃষাঙ্গ অ্যাটর্নি জেনারেল। আর দক্ষিণ এশীয় বংশোদ্ভূতদের মধ্যে প্রথম নির্বাচিত নারী সিনেটর।

ভারতে তাঁর পূর্বপুরুষের শিকড় প্রোথিত। তাঁর বাবা ডোনাল্ড জে হ্যারিস জ্যামাইকান। মা শ্যামলা গোপালানের জন্ম ১৯৩৮ সালে তৎকালীন ভারতের মাদ্রাজ প্রদেশে। কমলার জন্ম যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায়, ১৯৬৪ সালে।

বয়সের কারণে বাইডেন এক মেয়াদই দায়িত্বে থাকবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে পরের নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটদের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর দৌড়ে কমলাই সবচেয়ে এগিয়ে থাকবেন। তৈরি হতে পারে আরেকটি ইতিহাস—যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট।

গতকাল গণমাধ্যমে জয়ের ঘোষণা আসার পর কমলা টুইট করেন : ‘এই নির্বাচন ছিল বাইডেন আর আমার থেকে অনেক বেশি কিছু। এটা ছিল আমেরিকার অন্তরাত্মা এবং তা রক্ষা করার লড়াই।’

গত আগস্টে বাইডেনের রানিং মেট হওয়ার পর থেকে কমলা সোজাসাপটা ভাষায় করোনা মোকাবেলায় ট্রাম্পের গুবলেট পাকানোর পাশাপাশি তাার বর্ণবাদী মানসিকতা এবং অর্থনীতি ও অভিবাসী দমনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন।

তামিলনাড়ু রাজ্যের তিরুবারুর জেলার থুলাসেন্দ্রপুরাম গ্রামে বসবাস করতেন কমলা হ্যারিসের নানা পি ভি গোপালান। তাঁর জন্ম ১৮৯৮ সালে। ২০ বছর বয়সে চাকরির কারণে গ্রাম ছাড়তে হয় তাঁকে। কমলাকে বাইডেন রানিং মেট করার পর থুলাসেন্দ্রপুরাম গ্রামের বিভিন্ন স্থানে কমলার পোস্টার লাগানো হয়। তাঁর জয়ের জন্য আয়োজন করা হয় বিশেষ পূজাও।

কমলা হ্যারিসের মা শ্যামলা দিল্লির একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘হোম সায়েন্স’ বিষয়ে স্নাতক করেন। এরপর ১৯৫৮ সালে ‘নিউট্রিশন অ্যান্ড ইনডোক্রিনোলজি’ বিষয়ে শিক্ষাবৃত্তি পেয়ে স্নাতকোত্তর পড়তে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ায় পাড়ি জমান তিনি। পরবর্তী সময়ে ওই বিষয়ে একই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি করেন শ্যামলা। তিনি স্তন ক্যান্সার নিয়ে গবেষণা করেন।

কমলার জীবন বদলে যাওয়া অধ্যায়ের শুরু ব্ল্যাক হাওয়ার্ড ইউনিভার্সিটিতে ডিপ্লোমা করার মধ্য দিয়ে। শিক্ষাগত যোগ্যতা ও মেধার কারণে দুই মেয়াদে সান ফ্রান্সিসকো ডিস্ট্রিকের অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন তিনি। এরপর ২০১০ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন তিনি। ২০১৭ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর নির্বাচিত হন। সূত্র : এএফপি, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT