ঢাকা, বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১, ২০শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

অস্বাভাবিক জোয়ারে বেড়িবাঁধে ভাঙ্গন, প্লাবিত উপকূল

প্রকাশিত : 09:59 PM, 27 August 2020 Thursday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

সারাদেশে দমকা হাওয়া, ঝড়োবাতাস আর থেমে থেমে বৃষ্টি। বৈরী আবহাওয়ায় উত্তাল নদ-নদী। জোয়ারের পানির চাপে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হচ্ছে উপকূলীয় অঞ্চল। ভোলায় ইলিশা ফেরিঘাটের পন্টুন বিধ্বস্ত হয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন এবং জোয়ারের পানিতে ১২ গ্রাম প্লাবিত। বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ৪ কিমি রাস্তা নদীতে বিলীন হওয়ায় পানিবন্দী ৬ গ্রামের মানুষ দ্রুত বেড়িবাঁধের দাবি জানিয়েছে। এদিকে মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ রুটে সকল লঞ্চ ও স্পীডবোট চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফেরি চলাচল সীমিত করায় দু’পাশে পারাপারগামী যাত্রী ও যানবাহন আটকে পড়ায় দুর্ভোগ চরমে। অন্যদিকে বেড়িবাঁধবিহীন হাতিয়ার বিচ্ছিন্ন ইউনিয়ন নিঝুম দ্বীপে পানিতে ভেসে গেছে অনেক হরিণ। হরিণসহ নিঝুম দ্বীপের পর্যটন সম্ভাবনাকে বাঁচিয়ে রাখতে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবি স্থানীয়দের। এছাড়া পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে বঙ্গোপসাগরে মঙ্গলবার দুপুরে ডুবে যাওয়া ফিশিং ট্রলারের ১০ জেলে চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে উদ্ধার হলেও ৭ জেলে এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। এ অবস্থা শুরু হয় বুধবার সকাল থেকে। চলে গভীর রাত অবধি। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

ভোলায় দমকা হাওয়া ও ঝড়োবাতাসসহ থেমে থেমে বৃষ্টি হয়েছে বুধবার সকাল থেকে। উত্তাল হয়ে উঠেছে মেঘনা নদী। পানির ঢেউ আছড়ে পড়ে বেড়িবাঁেধ। প্লাবিত হয়েছে নি¤œাঞ্চলসহ ইলিশা ফেরি ও লঞ্চঘাট। এছাড়া লঞ্চঘাটের পন্টুন বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অপরদিকে ভোলার পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের ভেঙ্গে যাওয়া বেড়িবাঁধ ৭ দিনেও মেরামত করতে পারেনি পানি উন্নয়ন বোর্ড। ফলে বুধবার সকালে অতি জোয়ারের পানিতে ১২ গ্রাম প্লাবিত হয়। এছাড়া অস্বাভাবিক জোয়ারে ভোলার নি¤œাঞ্চল ও চরাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক কামরুজ্জামান জানান, নদী উত্তাল হওয়ায় ভোলা-বরিশাল রুটে লঞ্চ ও ভোলা-লক্ষèীপুর নৌরুটে লঞ্চ, ফেরি ও সিট্রাক চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এসব রুটে নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে। এদিকে বিধ্বস্ত ইলিশা লঞ্চঘাট পন্টুন সংস্কারে বিআইডব্লিউটিএর একটি টিম ইতোমধ্যে ইলিশা চলে এসেছে। আবহাওয়া ভাল হলে তারা কাজ শুরু করবে বলেও তিনি জানান। অপরদিকে ভোলার পূর্ব ইলিশার সাজিকান্দি গ্রামের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ার ৭ দিনেও সম্পূর্ণরূপে মেরামত করতে না পারায় বুধবারও জোয়ারের পানিতে লোকালয় প্লাবিত হয়েছে। ইলিশা সাজিকান্দিগ্রামের বাঁধ গত বৃহস্পতিবার ভোরে ভেঙ্গে গেছে। সকাল ও সন্ধ্যায় ২ বেলা জোয়ারে ১২ গ্রামের মানুষ চরম দুর্র্র্র্র্ভোগে দিন কাটাচ্ছে।

বাগেরহাট ॥ মোরেলগঞ্জে হোগলাবুনিয়া ইউনিয়নে জোয়ারের পানিতে ৪ কিলোমিটার রাস্তা ভেঙ্গে নদীতে বিলীন হয়েছে। এছাড়া ২০ কিমি কাঁচা-পাকা রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে চলাচলের প্রায় অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ফলে ৬ গ্রামের মানুষের চরম দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসী স্থায়ী বেড়িবাঁধের দাবি জানিয়েছেন। সরেজমিনে দেখা গেছেÑ ইউনিয়নের বদনিভাঙ্গা, সানকিভাঙ্গা, পাঠামারা, পানগুছি নদীর তীরবর্তী তিনটি গ্রাম। চলাচলের জন্য রয়েছে সলিংয়ের বড় ২টি রাস্তা। কাঁচারাস্তা রয়েছে ছোট-বড় ৮টি। গত ৫ দিনের অতিবৃষ্টি এবং অতিরিক্ত জোয়ারের পানিতে সানকিভাঙ্গা, সিএন্ডবি হয়ে চৌকিদারহাট পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার ইট সলিং রাস্তাটির কমপক্ষে ৭ টি স্থানে ভেঙ্গে গেছে। সেকেন্দার শেখের বাড়ি থেকে দারুল কোরান সিনিয়র মাদ্রাসা পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তাটি ধসে গিয়ে নদীতে বিলীন হয়েছে।

অনুরূপ বদনিভাঙ্গা ইটভাঁটি হয়ে পথেরহাট বাজার পর্যন্ত ৫ কিলোমিটারের ইটসলিং রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানে ভেঙ্গে গেছে। ৪ গ্রামের ১০ হাজার মানুষের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। গ্রামগুলোতে রয়েছে দাখিল মাদ্রাসা ২টি, আলিম মাদ্রাসা ১, হাফিজিয়া মাদ্রাসা ২, এবতেদায়ি মাদ্রাসা ১, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২, প্রাথমিক বিদ্যালয় ৪। এ ছাড়াও জামে মসজিদ রয়েছে ১৪টি। এ সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেলোয়ার হোসেন বলেন, জোয়ারের পানিতে ভেঙ্গে ও ধসে যাওয়া রাস্তাগুলো দ্রুত সংস্কারের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

মাদারীপুর ॥ বুধবার সকাল ১১টা থেকে কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌপথে সকল লঞ্চ ও স্পীডবোট চলাচল বন্ধ রয়েছে। বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। বিআইডবিউটিএর কাঁঠালবাড়ি লঞ্চ ঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। জানা গেছে, প্রবল বাতাস ও গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টির কারণে পদ্মা নদী উত্তাল হয়ে উঠেছে। দুর্ঘটনা এড়াতে বেলা ১১ টার দিকে লঞ্চ ও স্পীডবোট বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ। এদিকে বাতাসের গতি বৃদ্ধি পাওয়ায় ফেরি চলাচল সীমিত করা হয়। সকালের দিকে ৯টি ফেরি চলাচল করলেও বৈরী আবহাওয়ার কারণে ৫টি ফেরি কমিয়ে দেয়া হয়। ৯টির স্থলে ৪টি ফেরি ঝুঁকি নিয়ে উত্তাল পদ্মায় চলাচল করছে। বিআইডবিউটিএর কাঁঠালবাড়ি লঞ্চঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) আক্তার হোসেন জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে বুধবার বেলা ১১ টা থেকে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে চলাচল শুরু করবে।

হাতিয়া ॥ বেড়িবাঁধবিহীন হাতিয়ার বিচ্ছিন্ন ইউনিয়ন নিঝুম দ্বীপ জোয়ারের পানিতে প্লাবিত। এতে বনের মধ্যে উঁচু জায়গা না থাকায় ভেসে গেছে অনেক হরিণ। হরিণসহ নিঝুম দ্বীপের পর্যটন সম্ভাবনাকে বাঁচিয়ে রাখতে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবি স্থানীয়দের। সরজমিনে দেখা যায়, বনের মধ্যে ৫ফুট পানি, কোথাও দাঁড়ানোর জায়গা নেই, জীবন বাঁচাতে কখনও লোকালয়, কখনো সাঁতার কেটে অন্য চরে আশ্রয় নেয়া, আবার লোকালয়ে আশ্রয় নেয়া দলের ওপর কুকুর ও শিয়ালের আক্রমণে অনেকটা শূন্য হতে চলেছে হাতিয়ার পর্যটন সম্ভাবনাময় নিঝুম দ্বীপের প্রধান আকর্ষণ হরিণ। জানা গেছে, হাতিয়া উপজেলার ৮১ বর্গকিলোমিটার আয়াতনের বিচ্ছিন্ন নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়ন প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। নিঝুম দ্বীপের বন প্রহরী বাছির উদ্দিন বলেন, জোয়ারের পানিতে ভাসতে ভাসতে হরিণের পাল ছোয়াখালী এলাকা দিয়ে লোকালয়ে বন্দরটিলা- ামারবাজার প্রধান সড়কের ওপর চলে আসে। এ সময় অনেক হরিণকে কুকুর ও শিয়ালের আক্রমণের শিকার হতে দেখা যায়। নিঝুম দ্বীপ জাতীয় উদ্যান রক্ষায় গঠিত সহব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ডাক্তার বেলাল উদ্দিন জানান, নিঝুম দ্বীপে হরিণের জন্য বনের মধ্যে চৌধুরী ক্যাম্প এলাকায় ১৯৮২ সালে একটি মাটির কেল্লা তৈরি করা হয়। বিভিন্ন সময় প্লাবনে এখন তা অনেকটা সমতলের সঙ্গে মিশে গেছে। এটি এখন আর হরিণের আশ্রয়ে কাজে আসে না। নিঝুম দ্বীপের ইউপি চেয়ারম্যান মেহেরাজ উদ্দিন জানান, বেড়িবাঁধ নিয়ে বারবার উপজেলা সমন্বয় সভায় ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বলার পরও কোন কাজ হচ্ছে না। পর্যটন এলাকা নিঝুম দ্বীপের হরিণ বাঁচাতে হলে বেড়িবাঁধ এবং উঁচু মাটির কেল্লা দরকার।

গলাচিপা ॥ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার সোনারচর থেকে ৭০-৮০ কিলোমিটার দক্ষিণে গভীর বঙ্গোপসাগরে মঙ্গলবার দুপুরে ডুবে যাওয়া ফিশিং ট্রলার এফ বি নাদিম-নাফিসের ১৭ জেলের মধ্যে ১০ জেলে চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে উদ্ধার হলেও ৭ জেলে এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। দুর্যোগ পূর্ণ আবহাওয়ার কারণে এ ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে বলে এর মালিক রতনদী-তালতলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আতাউর রহমান দুলাল নিশ্চিত করেছেন । তিনি জানান, বঙ্গোপসাগর থেকে মাছ ধরে ফেরার পথে হঠাৎ প্রচ- ঢেউয়ের তোড়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। বুধবার চট্টগ্রামের বাশঁখালী থেকে মাঝিসহ ১০ জনকে উদ্ধার করা হয়। সেখানে উদ্ধারকৃত জেলেদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। নিখোঁজ জেলেরা হচ্ছেনÑ ভোলা জেলার দুলারহাট উপজেলার মুজিবনগর গ্রামের কালাম মাঝি (২৮), বাবুল মাঝি (৩৫), আলী আজগর (২৫), বাবুল সওদাগর (৩০), আবু সরদার (২২), আলমগীর মাঝি (৩০) ও সাবের মাঝি (৩৫)।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT