ঢাকা, শনিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

অপশক্তিকে জ্ঞান, চর্চা ও ধারণা দিয়ে রুখব ॥ ঢাবি ভিসি

প্রকাশিত : 01:25 PM, 8 December 2020 Tuesday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

ধর্মান্ধ উগ্র মৌলবাদী অপশক্তি কর্তৃক ভাস্কর্য বিরোধিতার নামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন ও ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদ ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

গতকাল সোমবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে শিক্ষক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক নিজামুল হক ভূইয়ার সঞ্চালনায় সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল। এছাড়া সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিম, রোকেয়া হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা, জিয়া হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান, আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. রহমত উল্লাহ, টেলিভিশন ফিল্ম এ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শফিউল আলম ভুইয়া, প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানীসহ সিনেট সদস্য ও গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল মনসুর আহমেদসহ শতাধিক শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের চরম দুর্ভাগ্য মহান মুজিববর্ষে এবং বাঙালী জাতির বিজয়ের মাসে একটি অনাকাক্সিক্ষত বিষয়ের প্রতিবাদ জানানোর জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মাঠে নামতে হলো। বিভিন্ন সময়ে অপশক্তি মানুষের সৃজনশীল সৃষ্টকর্মকে ধ্বংস করেছে। শিল্পকর্মের এই শক্তিশালী মাধ্যম বিশেষ করে ভাস্কর্য বিদ্যা, সেটি আজকে হুমকির মুখে পড়ছে। সামগ্রিকভাবে বলতে হবে আমাদের, যে এটি একটি শিল্পকলা, এটি মানবিক বিকাশের একটি অসাধারণ মাধ্যম। সেটির বিকাশ যখন বাধাগ্রস্ত হয়, তখন মানবতা পর্যুদস্ত হয়, মানবিক গুণাবলী স্তব্ধ হয়ে দাঁড়ায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘যারা ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়িয়ে মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি করে তাদের বিরুদ্ধে অতিদ্রুত ব্যবস্থা নেয়া দরকার। জাতির জনকের প্রতি অসম্মান প্রদর্শনের হীন একটি প্রয়াস, অন্যদিকে মানবিক বিকাশ এবং মানুষের সৃজনশীলতা বাধাগ্রস্তের সঙ্গে যে মানুষগুলো জড়িত সেই অপরাধীদের আইনের আওয়াতায় আনা খুবই জরুরী হয়ে পড়েছে। এর পেছনে ইন্ধনদাতা রয়েছে, কিছু অশুভ চক্র রয়েছে। যাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা সময়ের দাবি।’

অধ্যাপক ড. এ এস এস মাকসুদ কামাল বলেন, ‘কুষ্টিয়াতে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের ওপর যে হামলা তা কিন্তু ইসলাম প্রতিষ্ঠার জন্য নয়, এটি মূলত এদেশের মানুষের দীর্ঘদিনের লালিত সংস্কৃতির ওপর হামলা। আজকে যারা ভাস্কর্যের বিপক্ষে কথা বলছে তাদের একজনও খুঁজে পাওয়া যাবে না যারা ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ নিয়েছিল। তারা তো আমাদের স্বাধীনতার পক্ষে দাঁড়ায়ইনি এমনি বিরোধিতা করেছিল।’

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT